লক্ষ্মীপুরে তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ।

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে ১০ বছর বয়সী এক ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। সোমবার দুপুরে উপজেলার চরমার্টিন গ্রামে এ ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ভুক্তোভোগীর জ্ঞান ফিরেনি। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক ও এখনও রক্তক্ষরণ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

ভুক্তোভোগী ওই ছাত্রী স্থানীয় চর মার্টিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়েন বলে জানা গেছে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রীর চাচাতো ভাই স্থানীয় হারুনুর রশীদ সোমবার দুপুরে তাকে রান্না ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে তাকে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা ভর্তি করা হয়। আজ মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত ভুক্তভোগীর জ্ঞান ফিরেনি। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক ও রক্তক্ষরণ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত হারুন পলাতক রয়েছে বলে জানা গেছে।

ভুক্তোভোগীর ছাত্রীর মা জানান, ঘটনার সময় বাড়িতে অনেক আত্মীয়-স্বজন থাকায় পরিবারের সবাই তাদের নিয়ে ব্যস্ত ছিল। এ সুযোগে হারুন আমার শিশু মেয়েকে তুলে নিয়ে পাশের রান্না ঘরে ধর্ষণ করে রক্তাক্ত ও অচেতন অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। পরে তাকে রাতে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আনোয়ার হোসেন জানান, রক্তাক্ত অবস্থায় একজন শিশু ছাত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাকে যৌন নির্যাতনের প্রাথমিক আলামত পাওয়া গেছে, অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়েছে। বর্তমানে তার চিকিৎসা চলছে।

কমলনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) আলমগীর হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ধরতে পুলিশের তৎপরতা চলছে।

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Call Now
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

১৮ প্লাস

Call Now