পর্নোস্টার চেরি ডেভিলা নির্বাচনে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে লড়বেন।

২০১৬ সালের শেষের দিকে হিলারি ক্লিনটনের বিরুদ্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিদ্বন্দিতার খবরে রীতিমতো হকচকিয়ে উঠেছিলেন পর্নোস্টার চেরি ডেভিলা। ট্রাম্পের মতো একজন কীভাবে বারাক ওবামার উত্তরসূরি হতে পারেন, তা ভাবতেই পারছিলেন না তিনি।

সে কারণে পরবর্তী নির্বাচনে ট্রাম্পকে সরাতে নিজেই প্রেসিডেন্ট পদে লড়ার কথা ভাবছেন পর্নোস্টার চেরি। একাধিক পর্নো চলচ্চিত্রে অভিনয় করা চেরি চান না ২০২০ সালের পর আর যুক্তরাষ্ট্রের সর্বোচ্চ আসনে ট্রাম্পের মতো কেউ থাকুক।

সে কারণে ৩৯ বছর বয়সি এই অভিনেত্রী ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নির্বাচনে অংশ নেয়ার কথাও ভেবে ফেলেছেন। যদিও এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে লিখিতভাবে কিছু জানাননি তিনি।

চেরি বলছেন, যতক্ষণ রাজনীতির প্রতি নিজেকে পুরোপুরি নিমজ্জিত করতে না পারা পর্যন্ত এ ব্যাপারে লিখিত কিছু জানাবেন না। তবে, ইতোমধ্যেই পর্নোস্টার ফর প্রেসিডেন্ট ডটকম নামে একটি ওয়েবসাইটও চালু করেছেন তিনি।

সেই সাইটেই ট্রাম্পের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ঘোষণার একটি ভিডিও পোস্ট করার সিদ্ধান্তও নিয়েছেন তিনি। সেই ভিডিওতে অন্যান্য পর্নোস্টাররা তো থাকবেনই, সঙ্গে চেরির হয়ে গলা ফাটিয়ে বক্তৃতা দেবেন নব্বইয়ের দশকের সুপারস্টার ব়্যাপার কুলিও। এভাবেই নিজের পক্ষে প্রচারের প্রথম পদক্ষেপের জন্য তৈরি চেরি।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে চেরি বলেছেন, প্রথমবার যখন শুনতে পেলাম, যুক্তরাষ্ট্র চালানোর দায়িত্ব ট্রাম্প পেয়েছেন। ভেবেছিলাম সবাই হয়তো মজা করছে।

তিনি আরও জানান, প্রথমে মনে হয়েছিল মানুষ নিজের ভাল-মন্দটা অন্তত বোঝেন। কিন্তু পরে মনে হল আমজনতা কোনো ব্যক্তির মতামত, বক্তব্যের চেয়ে সেলিব্রিটি ট্যাগ দেখতেই হয়তো বেশি পছন্দ করেন।

সত্যিই যদি তারা এমনটাই চান, তাহলে এর সম্পূর্ণ সুযোগ আমি কাজে লাগাব। তাতে যদি ট্রাম্পকে পদ থেকে সরানো যায়, তাহলে এর চেয়ে ভাল আর কীইবা হতে পারে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Call Now
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

১৮ প্লাস

Call Now