আবেগপ্রবণ খালেদা জিয়ার কোলে রোহিঙ্গা শিশু

উখিয়ার ময়নার গোনা রোহিঙ্গা ক্যাম্প। খালেদা জিয়া আসলেন। কথা বললেন। ত্রাণও দিলেন। উঠে যাওয়ার সময় হঠাৎ করেই ছোট্ট একটি রোহিঙ্গা নবজাতক চিৎকার শুরু করল। এগিয়ে গেলেন বেগম জিয়া। পরম মমতায় কোলে তুলে নিলেন। কান্নাও থেমে গেল। আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেন বিএনপি প্রধান নিজেই।

সোমবার দুপুরে ময়নার গোনা রোহিঙ্গা শিবিরে এরকম দৃশ্য সকলের নজর কাড়ে। রোহিঙ্গা শিবিরে ত্রাণসামগ্রী বিতরণের পর রোহিঙ্গা নারীদের সাথে কথা বলে চলে যাওয়ার সময় এই ঘটনা ঘটে।

ত্রাণ বিতরণের পর রোহিঙ্গা শিবিরের একটি ছাউনির নিচে দাঁড়িয়ে থাকা একদল নারীকে দেখে তাদের খোঁজ নিতে এগিয়ে যান খালেদা জিয়া।
তিনি বলেন, ‘আপনারা কেমন আছেন?’

কম বয়সী এক নারী আমিরা তার শিশুকে কোলে নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। পাশে আরো ২০/৩০জন।অনেকে কালো বোরকা পরা।
খালেদা জিয়াকে আমিরা রাখাইন ভাষায় বললেন, ‘নো খাইয়ে, পাহাড়-পর্বত আডি আডি আসছি। ওনেরার দেশ আইসি। আর বেডা (স্বামী) মাইরেজে।’

এ সময়ে আমিরার শিশুটি কাঁদতে থাকে। মায়ের চোখ অশ্রুসজল। এ মুহূর্তে খালেদা জিয়ার সান্ত্বনা দিয়ে বলেন, ধৈর্য ধরুন। আল্লাহর কাছে দোয়া করুন।

আমিরার কোলে শিশুর কান্না থামাতে আবেগপ্রবণ হয়ে নিজে কোলে তুলে নেন এবং আদরের পরশ দেন। এসময়ে পাশে দলের সিনিয়র নেতাদেরও আবেগপ্রবণ হয়ে পড়তে দেখা গেছে।

খালেদা জিয়া সোমবার উখিয়ার ময়নার গোনার পর হাকিমপাড়া ও বালুখালী শিবিরেও অসহায় রোহিঙ্গাদের খোঁজ-খবর নেন।  হাকিমপাড়া ক্যাম্পে তিনি ডোয়েন নামে এক শিশুকে কোলে তুলে নেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বালুখালীর ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (ড্যাব) স্থাপিত মেডিক্যাল ক্যাম্পে ৫ হাজার শিশুখাদ্য ও ৫ হাজার প্রসুতিকে ওষুধ সামগ্রী প্রদান করেন।
উখিয়ার রোহিঙ্গা শিবিরে ত্রান সামগ্রি দেয়ার পর বিকাল সাড়ে ৪টায় বিএনপি চেয়ারপারসন কক্সবাজার সার্কিট হাউজে আসেন।
সর্বশেষ ২০১২ সালের মাসে কক্সবাজারের রামুতে বৌদ্ধ পল্লীতে হামলা ও ভাঙচুরের পরক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে কক্সবাজারে আসেন খালেদা জিয়া।

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Call Now
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

১৮ প্লাস

Call Now