বড়দের জন্য ১৮+ এডাল্ট জোকস পার্টঃ-২৭

(১) এক লোক তার ভেজা কাপড় শুকানোর জন্য

পাশের বাসায় গেছে কাপড়

ইস্তরী (Iron) আনতে,

তো গৃহকর্তা দরজা খুললে

লোক বলছেঃ আপনার স্ত্রী আছে ?

পড়শির উত্তরঃ জ্বী আছে

লোকঃ গরম হয় ?

পড়শিঃ মানে কী ! কি বলছেন এইসব…

লোকঃ না মানে, গরম করে একটু

ডলা দিতাম আর কি………।

(২) ছেলে:- আমার বয়স ২০ বছর।

তোমার বয়স কতো?

মেয়ে:- আমারও বয়স ২০ বছর।

ছেলে:- তাহলে একটা T20 ম্যাচ হয়ে যাক?

মেয়ে:- ৩দিন অপেক্ষা করো।
ছেলে:- কেনো?
মেয়ে:- কারণ, পিচ ভেজা।

(৩) এক লোকের সব কিছুই ঠিক ছিল। কিন্তু সমস্যা একটাই। তার আসল জিনিসটাই একটু ছোট!

তো বেশ কিছুদিন ধরেই একটি মেয়েকে পটাচ্ছিল এবং মেয়ের সাথে সেক্স করার তালে ছিল।

তবে তার ঐ ছোট জিনিসটার কারণেই সে বেশী দূর এগুতে সাহস পাচ্ছিল না।

তো একদিন সাহস করে সে তার বান্ধবীকে এপার্টমেন্টে নিয়ে এলো।

বান্ধবীও দেখা গেলো সেক্স করার জন্য রেডি!

লোকটি চাইল যেন মেয়েটি তার ছোট্ট জিনিসটা সরাসরি না দেখে। তাই সে লাইট নিভিয়ে দিল!

কিছু সময় পরে তারা উভয়েই বিবস্ত্র হল।

লোকটি অন্ধকারে তার জিনিসটি তার বান্ধবীর হাতে ধরিয়ে দিল!

তখন তার বান্ধবি বলে উঠলো, “Sorry I don’t smoke! আর তোমারও আক্কেল কি বলতো! এই মুহূর্তে কি কেউ smoke করে নাকি?!!!”

(৪) কৃষকের ইন্টারভিউ:::
উপস্থাপকঃ আপনি আপনার ছাগল রে কি খাওয়ান??
কৃষকঃ কোনটারে? কালো না সাদা??
উপস্থাপকঃ কালোটারে…
কৃষকঃ ঘাস…
উপস্থাপকঃ আর সাদা??
কৃষকঃ ওইটারেও ঘাসই খাওয়াই…
উপস্থাপকঃ ও!! আচ্ছা, এগুলিরে কই বাইন্ধা রাখেন??
কৃষকঃ কোনটা?? কালোটা না সাদাটা??
উপস্থাপকঃ সাদা…
কৃষকঃ ওইপাশে বাইরের ঘরে বাইন্ধা রাখি।
উপস্থাপকঃ আর কালোটা?
কৃষকঃ ওইটারেও বাইরের ঘরেই বান্ধি…
উপস্থাপকঃ আর গোসল করান কিভাবে?
কৃষকঃ কালো না সাদা??
উপস্থাপকঃ কালো…
কৃষকঃ পানি দিয়া।
উপস্থাপকঃ আর সাদাটা??
কৃষকঃ ওইটারেও পানি দিয়াই করাই…
উপস্থাপকঃ (চরম ক্ষিপ্ত): হা…!! সব কিছু যখন একই রকম করস তাইলে বার বার জিগাস ক্যান “কালা না সাদা”???
কৃষকঃ কারণ সাদা ছাগলটা আমার…
উপস্থাপকঃ ও!! আর কালোটা??
কৃষকঃ ওইটাও আমার ! ! ! ! ! !

(৫) বল্টু গেছে দোকানে বিষ কিনতে। দোকানদার :
ভাই বিষ দিয়া কি করবেন..?
বল্টু : আত্মহত্যা করব।
দোকানদার : কেন ভাই..?
বল্টু : কিছু কিছু জিনিস আছে কাউকে বোঝানো
যায় না।
দোকানদার : মানে..?
বল্টু : আজ সকালে আমি গরুর দুধ দোহাচ্ছিলাম।
হঠাৎকরে গরুটা বাম পা দিয়ে লাথি মারতে লাগল। আমি
বাধ্য হয়ে বাশের সাথে বাম পা বেধে রাখলাম।
এরপর গরুটা ডান পা দিয়ে লাথি মারা শুরু করল। আমি
এবার
গরুর ডান পা ও বাশের সাথে শক্ত করে বাধলাম।
অবশেষে লেজ দিয়ে বাড়ি মারতে লাগল। ভাবলাম
লেজটাও বেধে রাখি। কিন্তু লেজ বাধার জন্য কিছু
পেলাম না। শেষমেষ নিজের বেল্ট খুলে
বাধতে লাগলাম। বেল্ট খোলার কারণে আমার
প্যান্ট হঠাৎ করে খুলে গেল। এমন সময় আমার বউ
গোয়ালে এসে আমাকে ঐ অবস্থায় দেখলো।
এখন আপনিই বলুন আমি আমার বউকে কি করে তা
বোঝাব.??
বউ আমাকে ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে গেছে। এ
জীবন আমি আর রাখতে চাইনা।
দোকানদার : ভাই কয় টাকার বিষ লাগবে..???

You might also like More from author

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Call Now
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com

১৮ প্লাস

Call Now